সুনামগঞ্জের ভাটিপাড়া হত্যা মামলায় আরও দশ আসামির আত্মসমর্পণ

 

 

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নের নুর নগর গ্রামের শাহ মুল্লক (৪০) হত্যা মামলায় আরও দশ আসামি আত্মসমর্পণ করেছেন। এনিয়ে এ মামলার মোট ৪২ জন থানায় এসে আত্মসমর্পণ করলেন।

বুধবার (১৯ মে) সকাল ১১টার দিকে আসামিরা দলবদ্ধভাবে থানায় এসে হাজির হন।

পরে দিরাই থানা পুলিশ তাদের সুনামগঞ্জ আদালতে পাঠায়। আসামির স্বজনরা সূত্রে জানান, বাকি আসামি যারা রয়েছেন, তারাও আত্মসমর্পণ করবেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দিরাই সার্কেল) আবু সুফিয়ান জানান, বুধবার শাহ মুল্লক হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত দশ আসামি স্বেচ্ছায় থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেন। পরে আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। মামলার তদন্ত প্রায় শেষের দিকে, মেডিক্যাল রিপোর্ট পেলেই পুলিশি তদন্তে হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেওয়া হবে।

গত ( ১৩ মার্চ) খাস জায়গা দখল নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় ঘটনাস্থলেই মারা যান নুর নগর গ্রামের আবদুস সালমের ছেলে শাহ মুল্লক। ঘটনার পর ( ১৬ মার্চ) ভিকটিমের পক্ষের সামছুল ইসলাম বাদী হয়ে ফিরোজ আলীকে প্রধান আসামি করে ৬৩ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ সাতজনকে গ্রফতার করেছে। তাদের মধ্যে চারজন জামিনে এবং তিনজন কারাগারে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুর রহমান।

বিগত ১৩ মার্চ সকালের দিকে সামছুল ইসলাম পক্ষের লোকজন পিয়ান নদীর উত্তর পাড়ে কৃষি কাজ করতে গেলে ফিরোজ আলী ও আনহারের নেতৃত্বে আলমগীর মাস্টার, জমসেদ, নবাব, সেজু, রেজুসহ ফিরোজ বাহিনীর লোকজন সংঘবদ্ধভাবে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালান। এসময় উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষের ঘটনায় সামছুল ইসলামের পক্ষের একজন ঘটনাস্থলেই মারা যান এবং সামছুল ইসলামসহ উভয় পক্ষের অর্ধশত লোক আহত হন।

 

 

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য