সোনার খনিতে ভূমিধসে ১৫ শ্রমিক নিহত

 

পশ্চিম আফ্রিকান দেশ গিনিতে সোনার খনিতে ভূমিধসে অন্তত ১৫ জন প্রাণ হারিয়েছেন। শনিবার দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় সিগুইরি অঞ্চলের তাতাকৌরৌ গ্রামের কাছে ওই দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় কাউন্সিলর সেকৌ বিনৌ সিমাগান ও কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে আলজাজিরা এ তথ্য জানায়।

সিমাগান বলেন, ভূমিধসের পর ওই ব্যক্তিরা ঘটনাস্থলেই মারা যান। শনিবার সন্ধ্যার দিকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়। তবে আর কেউ সেখানে আছে কি না তা খুঁজতে রবিবারও সেখানে তল্লাশি চালায় উদ্ধারকারীরা।

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, নিহত ১৫ ব্যক্তির সবাই পুরুষ শ্রমিক। তাদের বয়স ১৪ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে।

ওই খনিতে কাজ করা সিনেমান তারাওরি নামের এক ব্যক্তি বলেন, তিনি তার দুই সহকর্মীকে স্বেচ্ছাসেবীরা উদ্ধার করতে দেখেছেন।

পশ্চিম আফ্রিকার এই দেশটিতে প্রায়ই এমন খনি দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। বিশেষ করে মালি সীমান্তে থাকা সিগুইরি অঞ্চলে। সরকারি হিসাবে এই অঞ্চলে ২০ হাজারের বেশি মানুষ সোনার খনিতে কাজ করেন।

সেখানে ২০১৯ সালে এক খনিতে ভূমিধসে অন্তত ১৭ জন নিহত হয়েছিলেন। এর নয় মাস পর আরও বেশ কয়েকজন প্রাণ হারান।

এসব সোনার খনিগুলোতে মূলত কারিগরেরা সনাতনী পদ্ধতিতে সুড়ঙ্গ করে কাজ করে থাকে। পাশাপাশি এ অঞ্চলে সরকারি হিসাবের বাইরে থাকা অনেক শ্রমিকও সোনা অন্বেষণ করে।

 

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য