রাষ্ট্রীয়ভাবে ২০মে কে “চা শ্রমিক দিবস”  ঘোষণার দাবি 

 

২০ মে কে “চা শ্রমিক দিবস” হিসেবে রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘোষণা, যথাযথ মর্যাদায় ঐতিহাসিক ২০ মে “মুল্লুকে চল” আন্দোলনের শতবর্ষ পালন এবং মজুরী সহ বাগান ছুটির ঘোষণার ক্ষেত্রে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য “চা শ্রমিক অধিকার আন্দোলন” এর উদ্যোগে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

রোববার (৯ মে) দুপুর ১২ টায় লেবার হাউস, শ্রীমঙ্গল এ চা শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে বিভিন্ন বাগানের পঞ্চায়েত নেতৃবৃন্দের স্বাক্ষর সহ প্রায় দুই সহস্রাধিক চা শ্রমিকদের স্বাক্ষর সম্বলিত স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। এর পূর্বে উক্ত দাবীর ভিত্তিতে মাসব্যাপী স্বাক্ষর সংগ্রহ অভিযান কর্মসূচি পরিচালনা করা হয়।

চা শ্রমিক অধিকার আন্দোলন – এর কেন্দ্রীয় আহবায়ক কমরেড হৃদেশ মুদির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্মারকলিপি প্রদান পূর্ববর্তী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের সাম্যবাদী আন্দোলন সিলেট জেলার সমন্বয়ক কমরেড সুশান্ত সিনহা সুমন, চা শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের নেতা সন্তোষ বাড়াইক, সন্তোষ নায়েক, শেলি দাস, লাংকাট লোহার, মিতা সিং, জীবন বাড়াইক, অঞ্জলী মুদি, হরি সবর প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন শতবর্ষ পূর্বে ঐতিহাসিক “মুল্লুকে চল” আন্দোলনের মাধ্যমে চা শ্রমিকরা যে রক্তস্নাত বিদ্রোহ তৈরি করেছিলেন তার ফলে সেদিন মালিক শ্রেণি শ্রমিকদের অনেক ন্যায্য দাবী মেনে নিতে বাধ্য হলেও সময়ের পরিক্রমায় শ্রমিকদের উপর শোষণ নিপীড়ন আজও বিদ্যমান।

তাই বক্তারা “২০ শে মে” র চেতনাকে ধারন করে শোষণ মুক্তির লড়াইয়ে চা শ্রমিকদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানান। সমাবেশ শেষে চা শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষে স্বারকলিপি গ্রহণ করেন সংগঠনের অর্থ সম্পাদক পরেশ কালিন্দি।

 

 

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য