জকিগঞ্জের বারহাল থেকে হেফাজত নেতা আটক 

 

 

 

সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলা হেফাজতে ইসলামের (সদ্য বিলুপ্ত) সাধারণ সম্পাদক ও শাহবাগ জামিয়া মাদানিয়া ক্বাসিমুল উলুম মাদ্রাসার নায়েবে মুহতামিম এবং জমিয়ত নেতা। শুক্রবার ভোর রাত ৩টায় সিলেটের জকিগঞ্জস্থ বারহাল কচুয়া গ্রামের তাঁর নিজবাড়ি থেকে জকিগঞ্জ থানা পুলিশের একটি দল গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারের বিষয়টি সূত্রে নিশ্চিত করেছেন জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবুল কাসেম।

তিনি জানান- গত ২০ তারিখে জকিগঞ্জ থানায় দায়ের করা পুলিশের একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। ওই মামলায় পূর্বেই আরও ৮ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এর আগে গত ১৯ এপ্রিল রাত সাড়ে ১০টায় জকিগঞ্জের বারহাল ইউনিয়নের মাইজগ্রাম জামে মসজিদ থেকে হেফাজতে ইসলামের গ্রেপ্তারকৃত নেতা-কর্মীদের মুক্তির দাবীতে ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক মসিউজ্জামান চৌধুরী শাহীনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল করে কিছু সংখ্যক মুসল্লি। মিছিলটি মাইজগ্রাম জামেমসজিদ থেকে শুরু হয়ে শাহগলিবাজার চৌমুহনীতে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে লকডাউন চলাকালীন অবস্থায় বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করায় মিছিল পরবর্তী সময়ে জকিগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে ৮ জনকে আটক করে। আটককৃতরা হচ্ছেন- মঞ্জুর আহমদ (৪৮), শাহ মুর্তজা চৌধুরী (৪০), জিল্লুর রহমান (৫০), হুমায়ুন আহমদ (৪৫), শাহাব উদ্দিন(৩০), জাকারিয়া আহমদ (৩৩), নুরুল হক(৪৭), কামিল আহমদ শেহজাদ (২২)।

এ ঘটনায় পরদিন ২০ এপ্রিল জকিগঞ্জ থানায় ১৯ জনের নামোল্লেখসহ বিএনপি, জামায়াত, শিবির ও হেফাজতে ইসলামের প্রায় ৩০/৩৫জন অজ্ঞাত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশ। (মামলা নং- ২৪)। মাওলানা মুফতি মাসউদকেও ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

 

 

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য