মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে মারধর: শিক্ষকের ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড

 

ময়মনসিংহের নান্দাইলে এক কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগে শফিকুল ইসলাম নামে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার (১০ মার্চ) দুপুরে নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এরশাদ উদ্দিন এই দণ্ডাদেশ দেন।
জানা যায়, নান্দাইল পৌর সদরের বালিয়াপাড়া মহল্লার আমেনা মফিজ নুরুল কুরআন নূরানি ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার নূরানি বিভাগের শিক্ষার্থী সাব্বির হোসেন (১১) কে পড়া না পাড়ার কারণে বাঁশের কঞ্চি দিয়ে তৈরি বেত দিয়ে শরীরে এলোপাথাড়ি মারধর চালায় মাদ্রাসার শিক্ষক শফিকুল ইসলাম (৪৫)।

সাব্বিরের বাবা পৌর সদরের কাটলিপাড়া গ্রামের জুয়েল মিয়া জানান, বুধবার (১০ মার্চ) সকালে পড়া ভুল হওয়ার উক্ত শিক্ষক তার ছেলেকে মারপিট করে। খবর পেয়ে মাদ্রাসায় গিয়ে ছেলের শরীরে মাথা থেকে পা পর্যন্ত লালচে ফোলা দাগ দেখতে পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ করেন তিনি। পরে ইউএনও ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা পান।
নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এরশাদ উদ্দিন জানান, শিক্ষক শিশুটিকে নির্মম নির্যাতন করেছে। আমি তাকে বেতসহ আটক করেছি। তার অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। এসময় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রোকন উদ্দীন আহমেদ, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আলী ছিদ্দিক উপস্থিত ছিলেন।

নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, বুধবার বিকেলে নান্দাইল থানা পুলিশ দণ্ডিত শিক্ষক শফিকুল ইসলামকে জেল হাজতে পাঠায়।

 

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য