শাবিতে চেতনা’৭১ ভাস্কর্যের নিরাপত্তায় পুলিশ মোতায়ন

শাবি প্রতিনিধি::

কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনার পর শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের চেতনা’৭১ ভাস্কর্য ও বঙ্গবন্ধু চত্বরের সুরক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয় গার্ডের পাশাপাশি পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

২০১৩ সালের ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় গোল চত্বরের পাশে অন্তত তিনের অধিক ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ওইদিনই বিশ্ববিদ্যালয়ের চেতনা-৭১ ভাস্কর্যে হামলা চালিয়ে ভাস্কর্যটির নামফলক ভাঙচুর করেন শিবির কর্মীরা। ঐ ঘটনায় সমাজবিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষকের মোটর সাইকেল ও দুইটি বাইসাইকেল পুড়িয়ে দেয় শিবির কর্মীরা। সেই সাথে সিএসই বিভাগের এক শিক্ষককে আহত করার ঘটনাও ঘটে।

গত শুক্রবার ১১ ডিসেম্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাস্কর্য ও গুরুত্বপূর্ণ স্থান নিরাপত্তায় অতিরিক্ত নিরাপত্তা পুলিশ মোতায়েন করা হয় বলে এ তথ্য নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয় সহকারী প্রক্টর ড. আলমগীর কবির।

দায়িত্বরত পুলিশ জানান, প্রতি শিফটে দুইজন করে গতকাল শুক্রবার থেকে ২৪ঘন্টা নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন তারা।

সহকারী প্রক্টর আলমগগীর কবির জানান, ‘সাম্প্রতিক ইস্যুকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাস্কর্যের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেই পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় গার্ড রয়েছে সার্বক্ষণিক সুরক্ষায়। এছাড়াও প্রক্টরিয়াল টিম ক্যাম্পাসে সার্বক্ষণিক নজর রাখছে, যেন অপ্রীতিকর কিছু এখানে না ঘটে।

বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ জানান, ‘কদিন আগে কুষ্টিয়ায় একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। আমরা কেউ চাই না এমন ঘটনা কোথাও ঘটুক। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে চেতনা ৭১ ভাস্কর্য ও বঙ্গবন্ধু চত্বর সহ বিশেষ সুরক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রহরীর পাশাপাশি বর্তমানে পুলিশ কর্তৃক সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষকদের উৎসাহ উদ্দীপনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০০৫/০৬ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্যোগে ও প্রথম ব্যাচের (১৯৯০-৯১) শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহায়তায় প্রায় ৬ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা ব্যয়ে ক্যাম্পাসের এ বিল্ডিংয়ের উত্তর পার্শ্বে নির্মিত হয় ‘চেতনা ৭১ ভাস্কর্যটি। ভাস্কর্যে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উচ্চে তুলে ধরার ভঙ্গিমায় একজন ছাত্র এবং সংবিধানের প্রতীকী বই হাতে একজন ছাত্রী রয়েছে। দূর থেকে দেখলে মনে হয় খোলা আকাশের নিচে ভাস্কর্যটি নির্ভীক প্রহরীর মত স্বাধীনতা এবং সার্বভৌমত্ব রক্ষা করার জন্য মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে।

এমএনআই

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য