জয়বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদের ১৮৯তম আসর অনুষ্টিত

জকিগঞ্জ টাইমস ডেস্ক: :

সিলেট চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি এ.টি এম সুয়েব বলেছেন- ‘নিজের মধ্যে দেশপ্রেম জাগিয়ে তুলতে হবে শেকড়কে ভালোবাসতে হবে। আর শেকড়কে ভালোবাসতে হলে সাহিত্য ও সংস্কৃতির ধারণা থাকতে হবে।’

তিনি জয়বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদ সিলেট জেলা শাখার ১৮৯তম নিয়মিত মাসিক সাহিত্য আসরে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) বিকালে সিলেট কেন্দ্রিয় শহিদমিনার প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত আসরে সংগঠনের জেলা শাখার সভাপতি বিশিষ্ট ছড়াকার অজিত রায় ভজন সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিসিকের সাবেক কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম করদাতা, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ মো: সাইফুল আলম।

প্রধান আলোচক তার বক্তব্যে বলেন- দেশ সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলতে সবাইকে দায়িত্বশীল হতে হবে। নিজের কাজ নিজে শতভাগ সৎভাবে সম্পন্ন করলেই সোনার বাংলা গড়া সম্ভব।

পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কবি মিজান মোহাম্মদের পরিচালনায় সাহিত্য আসরে লেখাপাঠ ও আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন- পরিষদের সভাপতি সাম্যবাদের কবি সাইদুর রহমান সাঈদ, সাবেক সভাপতি গীতিকবি হরিপদ চন্দ, বিশিষ্ট নাট্যকার কবি বাবুল আহমদ, সাংবাদিক ছড়াকার হৃশিকেশ রায় শংকর, সিলেট আই নিউজের সম্পাদক ছড়াকার সাংবাদিক দেবব্রত রায় দিপন, সহ-সভাপতি কবি-সাংবাদিক মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম, নাট্যকার হীরা মোহন রায়, কবি জান্নাত আরা খান পান্না, কবি মোসাম্মাৎ আসমা বেগম, ছড়াকার শহিদুল ইসলাম লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক কবি প্রশান্ত লিটন, সংস্কৃতি সম্পাদক কবি বিজন চন্দ্র দাস বিজয়, সাস্টিয়ান এস এম ফাহাদ, সহ-সাধারণ সম্পাদক ছড়াকার আবদুল কাদির জীবন, কবি হেলাল আহমদ, কবি মো: বশির মিয়া প্রমুখ।

এছাড়া আসরে উপস্থিত ছিলেন- কার্যকরী সদস্য বিশিষ্ট কবি সুমন বনিক, কবি কামাল আহমদ, অর্থ সম্পাদক কবি অমিতা বর্ধন, জকিগঞ্জ টাইমসের সম্পাদক লিমন তালুকদার, ফারুক আহমদ, ছড়াকার মিহির মোহন, ছড়াকার ফারজানা হক বৃষ্টি, আজাদ মিয়া প্রমূখ।

জাতির শ্রেষ্ট সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আসর শুরু হয়। আসরের শুরুতেই দেশত্ববোধক গান পরিবেশন করেন- মোসাম্মৎ আসমা বেগম, ফরিদ আহমদ, দেবদ্যূতি প্রণমী।

প্রাণের বাজি রেখে দেশ স্বাধীনের জন্য কৃতজ্ঞতা স্বরূপ আসরে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ফুলের মালা দিয়ে বরণ করা হয় এবং ১৮৮ তম সাহিত্য আসরের সেরা লেখক ছড়াকার শহিদুল ইসলাম লিটনকে সম্মাননা ও উপহার প্রদান করা হয়।​

এমএনআই

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য