মোবাইল চার্জের জন্য গুণতে হচ্ছে নগরীতে ১০০ টাকা।

লিমন তালুকদার : সিলেটের কুমারগাঁওয়ে বিদ্যুৎকেন্দ্রে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলার বেশকিছু অংশে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ায় সন্ধ্যার পর থেকে ঘুটঘুটে অন্ধকারে আচ্ছন্ন রয়েছে সিলেট মহানগর।

নগরে বিদ্যুৎ না থাকার সুযোগ নিয়ে মোমবাতির দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন বিক্রেতারা। জেনারেটরের লাইন থাকা দোকানপাটে মোবাইল চার্জের জন্যও ৫০ টাকা থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত গুণতে হচ্ছে। অনেক বাসাবাড়িতে পানি না থাকায় বিপাকে পড়েছেন বাসিন্দারা।

বিদ্যুৎ না থাকায় মোমবাতির চাহিদা বেড়েছে। প্রতি প্যাকেট মোমবাতি ৩০ টাকার স্থলে ৩৫/৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। চাহিদা বেশি থাকায় অনেক দোকানে মোমবাতি শেষ হয়ে গেছে। ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, সন্ধ্যার পর থেকে অনেকে ৫/৭ প্যাকেট করে মোমবাতি কিনে নিয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় এ অগ্নিকাণ্ডের পর থেকে সিলেটে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়নি।

গ্রিড উপকেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ডে পুরো সিলেটে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সকাল সাড়ে ১১টা থেকে সিলেট মহানগর, আশপাশের বিভিন্ন এলাকা, ছাতক ও সুনামগঞ্জ বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে। এর ফলে প্রায় সাড়ে ৪ লক্ষাধিক বিদ্যুতের গ্রাহককে দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে।

তবে সুনামগঞ্জ ও ছাতকে বিকল্প ব্যবস্থায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়েছে। বাংলাদেশ পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি (পিজিসিবি) সিলেটের ইনচার্জ মোস্তাকিম বিল্লাহ জানান, সন্ধ্যার পর সুনামগঞ্জ ও ছাতকে বিকল্প ব্যবস্থায় ফেঞ্চুগঞ্জ গ্রিড উপকেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়েছে। তবে সিলেট নগর ও আশপাশের এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কখন স্বাভাবিক হবে, এ বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারেননি তিনি।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় স্থানীয়ভাবে কাজ করছেন জানিয়ে মোস্তাকিম বিল্লাহ বলেন, যাতে অন্তত একটি ট্রান্সফরমার ঠিক করা যায়। এছাড়া ঢাকা থেকেও একটি প্রকৌশলী টিম সিলেটে আসছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আগুনে ৭০ কোটি টাকা মূল্যের ২৫/৪১ এমবিএ দু’টি ট্রান্সফর্মার পুড়ে গেছে। ট্রান্সফরমারগুলোর বাহ্যিক অংশ পুড়ে ছাই হয়ে গেলেও ভেতরের অংশ কেমন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেই সঙ্গে ৩৩ কেভি ফিডার ও বার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

গ্রিড উপকেন্দ্রে অগ্নিকাণ্ডে পুরো সিলেটে বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। সকাল সাড়ে ১১টা থেকে সিলেট মহানগর, আশপাশের বিভিন্ন এলাকা, ছাতক ও সুনামগঞ্জ বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে। এর ফলে প্রায় সাড়ে ৪ লক্ষাধিক বিদ্যুতের গ্রাহককে দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বিদ্যুতের গ্রিডের ট্রান্সফরমারে আগুন লাগে। এতে করে সাব-স্টেশনের আশেপাশের লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর ৭টি ইউনিট ও বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজনের প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

 

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য