নৃশংসভাবে চালককে হত্যা করে অটোরিকশা ছিনতাই

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে চালকের হাতের কব্জি ও পায়ের রগ কেটে হত্যা করে অটোরিকশা নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

জানা গেছে, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের মধ্যে আমির মিয়া নামের একজন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নূরুল হুদার আদালতে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়।

বৃহস্পতিবার বিকেলে পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আনোয়ার হোসেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আনোয়ার হোসেন জানান, ২৪ অক্টোবর সন্ধ্যায় নবীগঞ্জ শহর থেকে ১০০ টাকায় একটি অটোরিকশা ভাড়া করেন সোহাগ, শোয়েব মিয়া এবং রুবেল মিয়া নামের তিন যুবক। গাজীরটেক পয়েন্ট থেকে আমির মিয়া নামে আরো একজন ওঠেন। তারা গাড়িটি নিয়ে পূর্ব তিমিরপুর এলাকায় একটি নির্জন স্থানে নিয়ে গাড়িটির চালক আবিদ উল্লাহ সেজুর গলায় গামছা দিয়ে ফাঁস লাগান। একপর্যায়ে একটি ছুরি দিয়ে তার হাতের কব্জি ও পায়ের রগ কেটে ফেলেন। ইট দিয়ে মাথায় আঘাত করেন। কিছুক্ষণের মধ্যে তিনি মারা গেলে দুর্বৃত্তরা লাশ পার্শ্ববর্তী একটি জমিতে ফেলে গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যান।

আনোয়ার হোসেন আরো জানান, ২৭ আগস্ট তার অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ওইদিনই নিহতের ভাই রাজু বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় পুলিশ আমির মিয়া, শোয়েব মিয়া ও সোহাগকে গ্রেফতার করে। তাদের মধ্যে আমির মিয়া আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত শোয়েব মিয়াকে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এ ঘটনায় মামলার অন্যতম স্বাক্ষী হাসিনা বেগম পলাতক আসামি রুবেলের বোন আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। ছিনতাই হওয়া গাড়িটি এখনো উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তবে রুবেলকে গ্রেফতার করতে পারলে এটি উদ্ধার করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

জকিগঞ্জ টাইমস/ এল টি ২৮

আপনার মতামত প্রদান করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য