রায়হান হত্যার ঘটনায় নগরীর সুবিদ বাজারে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

জকিগঞ্জ টাইমস: সিলেট নগরীর বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ীতে রায়হান আহমেদ নিহতের ঘটনায় সুষ্ট তদন্তের দাবিতে ও হত্যাকারীদের গ্রেফতার এবং বিচারের দাবিতে বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) বিকাল ৫টায় নগরীর সুবিদবাজারে ৭নং ওয়ার্ডের বনকলাপাড়া এলাকাবাসীর উদ্যোগে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সিলেট জেলা কমিটির সভাপতি সৈয়দ আবু ফাহিম আজাদ সুমনের সভাপতিত্বে ও যুবসংহতি সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান মাহমুদের পরিচালনায় মানববন্ধনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও এলাকার বিশিষ্ট মুরুব্বি মুহিবুর রহমান ছাবু।

আরো বক্তব্য রাখেন- নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) এর কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও অগ্রণী তরুণ সংঘের সভাপতি মোঃ জহিরুল ইসলাম (মিশু), ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল আজিজ মনু, শাহান চৌধুরী, মহানগর যুবলীগ নেতা লাহিন আহমেদ, সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন সুবিদবাজার শাখার সভাপতি জাহিদুল মৃধা, মোঃ পাবেল আহমেদ ইফতি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন মোঃ মানিক মিয়া, মোঃ সেলিম আহমেদ, মোঃ নিটু মিয়া, মাহবুবুর রহমান জুলহাস, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শরী বক্স, মুহিন আজাদ শিপলু, মোঃ রুমেল আহমেদ, লিয়াকত, আখলাকুল আম্বিয়া, কামরান আহমেদ প্রমুখ।

ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার করে শাস্তির আওতায় নিয়ে আসুন। রায়হান আহমদ হত্যায় যাদের নাম এসেছে তাদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে বিচার কার্য পরিচালনা করা হোক। অভিযুক্তরা বাইরে এভাবে ঘুরাঘুরি করতে থাকলে মামলার তদন্ত ব্যাহত হতে পারে। তাই অভিযুক্তদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তারা।

উল্লেখ্য, গত রোববার ভোরে রায়হান আহমদ (৩৩) নামে সিলেট নগরের আখালিয়ার এক যুবক নিহত হন। পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, ছিনতাইয়ের দায়ে নগরের কাষ্টঘর এলাকায় গণপিটুনিতে নিহত হন রায়হান। তবে কাষ্টঘর এলাকার সিসিটিভি ফুটেজে গণপিটুনির কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। সেখান থেকে পুলিশ কাউকে ধরে নিয়ে আসারও প্রমাণ নেই সিসিটিভি ফুটেজে। রায়হান নগরের আখালিয়ার নেহারিপাড়া এলাকার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি স্টেডিয়াম মার্কেট এলাকায় এক চিকিৎসকের চেম্বারে সহকারি হিসেবে কাজ করতেন।

জকিগঞ্জ টাইমস/এবিএ/১০

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য