পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে যুবক হত্যার ঘটনায় তালামীযে ইসলামিয়ার নিন্দা

জকিগঞ্জ টাইমস : সিলেটের কোতোয়ালি থানার বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে পুলিশের নির্যাতনে আখালিয়া এলাকার রায়হান আহমেদ নামক এক যুবকের মৃত্যুতে গভীর উদ্বেগ ও তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া। ১৪ অক্টোবর, বুধবার বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি আখতার হোসাইন জাহেদ ও কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূনুর রহমান লেখন এক যৌথ বিবৃতিতে এই উদ্বেগ ও নিন্দা প্রকাশ করেন।

নেতৃবৃন্দ অমানবিক এ ঘটনায় নিহত রায়হান আহমেদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতিতে তাঁরা বলেন, পূণ্যভূমি সিলেটের প্রাণকেন্দ্র বন্দর বাজারের পুলিশ ফাঁড়িতে চাঁদা না পেয়ে যুবককে নির্যাতন করে হত্যার ঘটনায় সিলেটবাসীর মতো তালামীযে ইসলামিয়াও বিস্ময়ে হতভম্ব ও উৎকন্ঠিত। জনগণের বন্ধু হিসেবে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা সংস্থা বাংলাদেশ পুলিশের যেখানে জনসাধারণের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কথা, সেখানে স্বয়ং পুলিশ বাহিনীর কতিপয় সদস্য কর্তৃক চাঁদা না পেয়ে সাধারণ মানুষকে অমানুষিক নির্যাতন ও হত্যার মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটছে। এর পূর্বেও পুলিশ কর্তৃক মেজর সিনহা হত্যা ও ভোলায় মুসল্লীদের উপর গুলি চালানোর মতো লোমহর্ষক ঘটনা সংগঠিত হয়েছে। আইন রক্ষাকারী সংস্থার এ ধরণের আইন বহির্ভূত কার্যক্রমে লিপ্ত হওয়ার ঘটনা যথেষ্ট উদ্বেগজনক।

নেতৃবৃন্দ আরও উল্লেখ করেন, পুলিশ বাহিনীর এ ধরণের বিরূপ আচরণ দেশের আপামর জনসাধারণকে ভীত-সন্ত্রস্ত করে তুলছে। এই অবস্থার পরিবর্তন এবং পুলিশ বাহিনীর আইন বহির্ভূত কার্যক্রমের লাগাম টেনে ধরার জন্য সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ রায়হান আহমেদ হত্যার ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।
প্রসঙ্গত, গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার রাতে সিলেটের বন্দর বাজার পুলিশ ফাঁড়িতে এসআই আকবর হোসেন ভুঁইয়ার নেতৃত্বে কতিপয় পুলিশ সদস্য কর্তৃক আখালিয়া এলাকার রায়হান আহমেদ নামক এক যুবককে মাত্র ১০ হাজার টাকা চাঁদার জন্য আটকে রেখে নির্যাতন চালানো হয়। পরবর্তীতে অমানবিক নির্যাতনের ফলে পুলিশ ফাঁড়িতেই তাঁর মৃত্যু ঘটে। নিহত রায়হান আহমেদ সিলেট নগরীর আখালিয়া নেহারিপাড়া এলাকার মৃত হবিবুর রহমানের ছেলে। তিনি নগরীর রিকাবীবাজার এলাকায় একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কাজ করতেন।

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য