গোয়াইনঘাটে কমছে বন্যার পানি

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধিঃ ধানের ফলন বিপর্যয়ে আবারও স্বপ্নভঙ্গ হলো গোয়াইনঘাট উপজেলার কৃষকদের। ৬ষ্ঠ বারের বন্যায় শেষ হয়ে গেছে উপজেলার বিস্তীর্ণ হাওরের হাজার হাজার হেক্টর ধানের ক্ষেত। সারাবছর চলার খাদ্য যোগানো একমাত্র ফসলের এমন দশায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন ধার-দেনায় জর্জরিত কৃষকেরা।

দিগন্তজোড়া ধানের ক্ষেত সবুজের গালিচা বিছিয়ে দিয়েছে বিস্তীর্ণ হাওরের বুকে। এ যেন সযত্নে বিছানো শীতল পাটি। আর ক’দিন পরেই এই সবুজ ধানে লাগতো সোনালি রঙ, ঘরে উঠতো নতুন ফসল। কিন্তু কৃষকের মুখে নেই হাসির ঝিলিক। ক্ষেতের কাছে গিয়েই বুঝা গেলো তাদের দুশ্চিন্তার কারণ। ধানের গাছ আছে, ধান আছে, কিন্তু ধান মাটির সাথে কথা বলছে। নিম্নাঞ্চলের হাজার হাজার হেক্টর ফসলি জমি এখনো পানিতে নিমজ্জিত। উপজেলার হাওরের হেক্টরের পর হেক্টর জমিতে ঘটেছে মারাত্মক ফসল বিপর্যয়।

পাহাড়ি ঢল আকস্মিক বন্যায় অতি বৃষ্টির ফলে কৃষকদের ঘুম কেড়ে নিয়েছে বিপর্যস্ত ধানের ক্ষেত।

কৃষক মুশাহিদ আলী পানিতে হাত দিয়ে বলেন, সব শেষ; পঁচে গেছে টানদিলে হাতের মুঠোয় সব ধান গাছ চলে আসে। ইলিয়াছ মিয়া বলেন, মানুষের খাদ্য না হয় ধার কর্জ করে আনা যাবে, গরু বাঁচাবো কি করে, আছি গরুর খাদ্য সংকটে। এটা তো আর কারো কাছ থেকে ধার আনা যাবেনা।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ সুলতান আলী মুঠোফোনে জানান, ষষ্ঠবারের বন্যায় উপজেলার সব কয়টি ইউনিয়নের রূপায়িত আমনে ও আগাম সবজিক্ষেত পানিতে নিমজ্জিত ছিল। বর্তমানে উঁচু জায়গার পানি সরে গেছে, নিম্নাঞ্চলের বেশ কিছু জায়গায় এখনও পানিতে ভরপুর। পুরাপুরি পানি সরে না গেলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করা যাচ্ছে না।

জকিগঞ্জ টাইমস/এল টি ০১

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য