প্রবাসে ফটোসাংবাদিক হয়ে উঠার গল্প-৩

মিহির মোহন দাস : আমি রোদে পুড়ব, বৃষ্টিতে ভিজব/ ফুল হয়ে ফুটব, পাখি হয়ে উড়ব/আমি প্রকৃতি হব। এ কবিতাটি কবি মনজুর হাসানের। আমি জীবনের উত্থান পতন চলার গতি প্রকৃতি থেকে শিখি। যখন যে পরিবেশে যাই প্রকৃতির সান্নিধ্যে যাবার চেষ্টা করি। বার্মিংহামে থাকাকালীন সময়ে যখন যেখানে গিয়েছি ছবি তুলেছি। প্রকৃতির সাথে নীরবে কথা বলেছি। ভালোলাগা ভালোবাসার মুহুর্তগুলো শেয়ার করেছি।

এখানে প্রথম ছবিটি স্মলহিথ পার্কের। মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত এ পার্ক। ১৯৭১ সালের ২৮ শে মার্চ বর্হিবিশ্বে প্রথম স্বাধীন বাংলার পতাকা উত্তোলন করা হয়। সবুজ ঘাসের বুকে হংস-হংসীদের বিচরণ। কবি জীবনান্দের কবিতার মতো-আমি যদি হতাম বনহংস;বনহংসী হতে যদি তুমি;কোনো এক দিগন্তের জলসিড়ি নদীর ধারে ধানক্ষেতের কাছে ছিপছিপে শরের ভিতর এক নিরালা নীড়ে;

দ্বিতীয় ছবিটি Handsworth park এর । আমার পিশির বাসার পাশে। এ পার্কটি। মাঝে মাঝে যখনই বেড়াতে যেতাম। তখন আমি আর আমার কাজিন সন্জু ঘুরে বেড়াতাম। একজন স্পষ্টভাষী মানুষ সে। ছবিটি লিখে সে সময়ে ফেইসুবকে দেওয়া স্ট্যাটাস ছিলো-সময়ের তালে সকাল গড়িয়ে দুপুর, দুপুর গড়িয়ে বিকেলের মিষ্টি আলো, হংস-হংসীদের ঘরের ফেরার তাগিদে তীরে ফেরা, সন্ধ্যা জানিয়ে দেয় এবার ঘরে ফেরার পালা…..কিন্ত আমার হয়নি এখনো সময় তোমার কাছে ফেরা!!!!!!

লেখক : প্রভাষক, ইংরেজি বিভাগ
মদন মোহন কলেজ, সিলেট

আপনার মতামত প্রদান করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য