জকিগঞ্জে মোবাইল নাম্বারে ফোন দিয়ে তালিকা চূড়ান্ত করলেন ইউএনও

নিজস্ব প্রতিবেদক : অনিয়ম রোধে জকিগঞ্জ উপজেলার ৮ হাজার ৫শ’ মানুষকে সরকারি কয়েকজন কর্মকর্তাকে নিয়ে ফোনের মাধ্যমে নিশ্চিত হয়ে চূড়ান্ত তালিকা তৈরী করেছেন ইউএনও বিজন কুমার সিংহ। উপজেলার তালিকা করা ৮ হাজার ৫শ’ মানুষকে ১০ জন সরকারি কর্মকর্তাকে নিয়ে তালিকায় থাকা সবাইকে ফোন করে সঠিক তথ্য যাচাই বাছাই করে চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করেছেন বলে সিলেটভিউকে জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, শিক্ষক, সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটির মাধ্যমেএ তালিকা তৈরি করা হয়েছে। জকিগঞ্জের তালিকায় একেক জনের নামের পাশে একটি মোবাইল নাম্বার ও জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করা হয়েছে। সকল ইউনিয়ন থেকে আসা তালিকায় প্রত্যেকটি মোবাইল নাম্বারে তিনিসহ উপজেলার আরো ১০ জন সরকারি কর্মকর্তাকে ফোন করে সঠিক তথ্য যাচাই বাছাই করেছেন বলে জানান তিনি। যাদের মোবাইল নাম্বারে সংযোগ সম্ভব দেয়া হয়নি তাদের বাড়িতে শিক্ষক প্রতিনিধি পাঠিয়ে তথ্য যাচাই করেছেন বলে জানা গেছে।

হবিগঞ্জে এক ব্যক্তির মোবাইল নাম্বার দুই’শ বার ব্যবহার করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটি সংশ্লিষ্ট উপজেলার কর্মকর্তা যাচাই বাছাই করার কথা। তিনি বলেন, একটি নাম্বারে এক বারের বেশি টাকা যাবে না। কারণ হসেবে তিনি উল্লেখ করেন, সফটওয়্যারে অটোমেটিক বিষয়টি ধরা পড়বে।

জানা গেছে, উপজেলা প্রশাসন থেকে তৈরী করা তালিকা সেন্টার এইড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে ( সি.এ.এম.সি) আপলোড করা হয়। এই তালিকা প্রথমে ত্রাণ মন্ত্রণালয় পরে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় ভালো করে দেখে নেয়। কারণ প্রতিটি মোবাইল নাম্বার সম্পর্কে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের অভিজ্ঞদের দিয়ে যাচাই বাছাই করা হয়। সর্বশেষ অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। সেখানে দেখা হয়, তালিকায় নাম আসাদের কেউ অন্য কোন উপকারভোগীদের তালিকায় আছেন কি-না। যদি অন্য তালিকায় নাম থেকে থাকে তাহলে তাকে এ তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, এসব টাকা সুবিধাভোগীদের মোবাইল ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হচ্ছে। সুবিধাভোগীদের এতে কোন সার্ভিস চার্জ দেয়া লাগবে না। ঈদের পূর্বেই দেশের ৫০ লাখ মানুষ পাবে এই সুবিধা।

আপনার মতামত প্রদান করুন
  • 1.4K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য