চাঁদনীর মতো জান্নাতে গাছ লাগাই বিনিময়ে জান্নাতে পাবো ফল

চাঁদনীর মতো জান্নাতে গাছ লাগাই বিনিময়ে জান্নাতে পাবো ফল।

নিজস্ব : প্রতিবেদক,
জকিগঞ্জ টাইমস : আমাদের চারপাশে কতো ফলের গাছ! আম, জাম, কাঁঠাল, কলা, লিচু, পেয়ারা আরো কতো ফলের গাছ! গাছ আমাদের অনেক উপকার করে। গাছের সাহায্যে আমরা বেঁচে থাকার মৌলিক উপাদান অক্সিজেন গ্রহণ করি। গাছ আমাদের ছায়া দেয়, ফল দেয়। ফল খেতে কতো মজা! সবারই হয়তো ইচ্ছে করে, ইশ! আমার যদি একটি ফল বাগান থাকতো! তাতে আমি যতো খুশি গাছ লাগাতাম। যতো ইচ্ছা ফল খেতে পারতাম! কিন্তু ভাবতে যতো সহজ, গাছ লাগানো কি ততো সহজ! যাও না একটা গাছ লাগাতে, দেখ কতো কষ্ট! গাছে পানি দাও, পরিচর্যা করো, ছাগল-গরু থেকে হেফাজত কর আরো কতো কী! তার চেয়ে যদি এমন কোনো উপায় থাকতো আমি মুখ দিয়ে বলবো আর একের পর এক গাছ হতে থাকবে। গাছে গাছে বাগান ভরে যাবে! কিন্তু চাইলেই কি তা হওয়া সম্ভব! এ পৃথিবীতে স্বপ্নেই শুধু এমন হওয়া সম্ভব, বাস্তবে নয়।আমাদের তো আর আলাদীনের চেরাগের দৈত্য নেই, যে বলবো‘এই দৈত্য! এখোনি একটা বাগান করে দাও। বাগানে অনেক ফলের গাছ থাকবে। গাছে থোকা থোকা ফল থাকবে!’ কিন্তু জানো, আমার কাছে না একটি উপায় আছে! সহজে গাছ লাগানোর একটি উপায় আছে। যার মাধ্যমে তুমি খুব সহজে জান্নাতে গাছ লাগাতে পারবে।তোমাকে আমি কিছু বাক্য শিখিয়ে দেবো; তুমি তা বলবে অমনি জান্নাতে একটি করে গাছ হবে।
নবীজী বলেছেন, যে ব্যাক্তি সুবহানাল্লাহি ওয়া বিহামদিহী সুবহানাল্লাহিল আযীম পড়বে তার জন্য জান্নাতে একটি গাছ হবে।[দ্র. জামে তিরমিযী, হাদীস ৩৪৬৪] তো তুমি যতো ইচ্ছা ততো গাছ জান্নাতে লাগাতে পারবে। একবার সুবহানাল্লাহ বলবে, একটি গাছ হবে। দুই বার সুবহানাল্লাহ বলবে দুইটি গাছ হবে। এভাবে যতোবার বলবে ততো গাছ হবে জান্নাতে।
ছোট্ট মেয়ে চাঁদনী মায়ের কাছ থেকে জান্নাতে গাছ লাগানোর হাদীস শুনেছে। অমনি সে জান্নাতে গাছ লাগানো শুরু করে দিয়েছে। সে জায়নামাযে বসে কী যেনো পড়ছে। ভাই বাসায় ফিরে দেখলেন, চাঁদনি জায়নামাযে বসে কী যেনো করছে। জিজ্ঞেস করলেন, বোন চাঁদনী! তুমি জায়নামাযে বসে কী করছো? চাঁদনী বললো, জান্নাতে গাছ লাগাচ্ছি। আজকে মায়ের কাছ থেকে হাদীস শুনেছি, নবীজী বলেছেন,…। তাই আমি জান্নাতে গাছ লাগাচ্ছি।
আমাদের প্রিয় নবীজী আরো বলেছেন, মেরাজের রাতে হযরত ইব্রাহীম (আঃ)এর সাথে আমার সাক্ষাৎ হয়েছিল। তিনি আমাকে বলেছেন, হে মুহাম্মাদ! আপনার উম্মতকে আমার সালাম বলবেন এবং তাদেরকে জানাবেন, জান্নাতের মাটি খুবই উর্বর। তার পানি খুবই সুপেয় এবং তা গাছপালা বিহীন খোলা প্রান্তর (সুতরাং আপনি তাদেরকে তাতে বেশি বেশি গাছ লাগাতে বলুন)। তাতে গাছ লাগানোর চারা হলো, (সুবহানাল্লাহ, আলহামদু লিল্লাহ, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, আল্লাহু আকবার) [দ্র. জামে তিরমিযী, হাদীস ৩৪৬২]
প্রিয় বন্ধুরা! চলো আমরাও চাঁদনীর মতো জান্নাতে গাছ লাগাই।
দুনিয়া তো  আমাদের ক্ষণস্থায়ী বাসস্থান। তাতে আমরা কয়েক বছরের মুসাফির। আমাদের চিরস্থায়ী বাড়ি তো জান্নাতে। সেই জান্নাতে বেশি বেশি গাছ লাগানোর জন্য আমাদের প্রিয় নবীজী সাল্লাল্লাহু তা’আলা আ’লাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদেরকে এ বাক্যগুলো শিখিয়ে দিয়েছেন। একবার সুবহানাল্লাহ বলো জান্নাতে একটি গাছ হবে, আলহামদুলিল্লাহ বলো জান্নাতে একটি গাছ হবে, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ বলো জান্নাতে একটি গাছ হবে আল্লাহু আকবার বলো জান্নাতে একটি গাছ হবে। এতে কতো লাভ হবে আমাদের!কোনো কষ্ট ছাড়াই জান্নাতে একেকটা গাছ হবে। জান্নাতে গেলে দুনিয়ায় বসে আমাদের লাগানো গাছের ফল আমরা খেতে পারবো ইনশাআল্লাহ। আল্লাহ্ তা’আলা আমাদের সকলকে হেদায়াত দান করুন ও যে আমল করলে জান্নাতে যাওয়া যায় তেমন আমল করার তাওফীক দান করুন। [আমিন]
কতো ছোট্ট একটি আমল, অথচো কতো বড়ো লাভ। ইনশাআল্লাহ এখন থেকে আমরা বেশি বেশি এই আমল করবো, বিনিময়ে জান্নাতে পাবো ফল ভর্তি অনেক অনেক গাছ। আল্লাহ আমাদেরকে এই আমল করার তাওফীক দান করুন। [আমীন]

আপনার মতামত প্রদান করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের অন্যান্য